,

আশিক চৌধুরী কলমের কালি অশ্রু হয়ে ঝড়ছে সাংবাদিকদের চোখে ॥ আশিক চৌধুরীর , স্মৃতিচারনে-বাপ্পী চৌধুরী

 
বিল্লাল হোসেন প্রান্ত : কবি বিহনে একটি বছর। প্রতিটি হৃদয় তার শূন্যতাকে উপলব্ধি করে অশ্রু হয়ে ঝরেছে দুচোখ বেয়ে। এ যেনো শিক্ষকের সাংবাদিকতার কালি, ঝড়েছে প্রতিটি ছাত্রের চোখ দিয়ে। আজকের এই দিনে সাংবাদিকতার শিক্ষক, কবি, লেখক আলহাজ্ব আশিক চৌধুরী প্রয়াত হয়েছেন। তাকে ঘিরে তার সহকর্মী, শুভাকাঙ্খি সাংবাদিকরা স্মৃতিচারণ করেছেন মৃত্যুবার্ষিকীতে।
ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের আয়োজনে ২ এপ্রিল শুক্রবার মীর প্লাজায় আলহাজ্ব আশিক চৌধুরী প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কোরআন তেলওয়াত, মিলাদ মাহফিল, দোয়া ও স্মৃতিচারণ করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রতিটি সাংবাদিক যারা কোন না কোন ভাবে প্রয়াত সাংবাদিক শিক্ষক আশিক চৌধুরী’র শিক্ষা গ্রহণ করেছিলেন। সেখান থেকেই এই মানুষগুলো ধারণ করেছে একজন বড় ভালো মানুষ আশিক চৌধুরীকে। তার স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বক্তারা সকলেই আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন। বক্তারা তাকে মানুষ গড়ার কারিগর, ময়মনসিংহ সংবাদ জগতের নিরবিচ্ছিন্ন বন্ধু, শিক্ষক সাংবাদিক, পর উপকারী সর্বোপরি লেখার মানুষ এমন অসংখ্যক নামে নামান্তর করেন।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রয়াত শিক্ষক সাংবাদিক আশিক চৌধুরী’র সহধর্মিনী তামান্না চৌধুরী প্রিয়াংকা ও আশিক চৌধুরী’র স্হেহধন্য পিন্টু সরকার।
ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব সভাপতি ও দৈনিক মাটি ও মানুষ প্রকাশক সম্পাদক একে এম ফখরুল আলম বাপ্পী চৌধুরীর সভাপতিত্বে, আব্দুল কাদের মুন্না এবং দৈনিক মাটি ও মানুষ এর বার্তা সম্পাদক বিল্লাল হোসেন প্রান্ত’র সঞ্চালনায় স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় প্রেসক্লাব সহ-সভাপতি প্রদীপ ভৌমিক, ময়মনসিংহ প্রতিদিন প্রকাশক সম্পাদক ড. ইদ্রিস খান, মোহনা সংবাদ ২৪. কম এর প্রধান সম্পাদক মনীর চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক উর্মিবাংলা প্রতিদিন ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সুমন ভৌমিক, প্রতিদিন কাগজ এর সম্পাদক প্রকাশক মোঃ মাহমুদুল হাসান রতন, নির্বাহী সদস্য আব্দুল্লাহ আল আমিন, নাসরিন সুলতানা, দীপক চন্দ্র দে, মোঃ নজরুল ইসলাম মিন্টু, সেলিম মিয়া, শরৎ সেলিম, মোঃ মারুফ হোসেন কমল, মারফুয়া জাহান মোনালিসা, বিভাগীয় প্রেসক্লাব সরিষাবাড়ি শাখা সভাপতি ফজলুল হক, সাংবাদিক মোঃ কামাল, আনিসুর রহমান ফারুক, বিপ্লব দে নিভ, সাংবাদিক সোহেল, বাপ্পি দাস, দারা উদ্দিন দারা, রতনা, ইসমাইল হোসেন হৃদয়, নিহার রঞ্জন কুন্ডু, রোকসানা আক্তার, তারিক উল হক, ফারজানা আক্তার ঝুমু প্রমুখ।
আবেগ আপ্লুত অশ্রুশিক্ত নয়নে আফসোস আর ভালোবাসার স্মরনে তরুন বয়সের একসাথে পথ চলার বন্ধু, সহকর্মী আশিক চৌধুরী’র স্মৃতিচারনে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি একে এম ফখরুল আলম বাপ্পী চৌধুরী বলেন, সেই এস.এস.সি পাশ করার পর থেকে এক সাথে পথ চলা আমার আর আশিক চৌধুরী’র। হয়তো মৃত্যুর পরও পরপারে তার সাথেই আমার চলা হবে। সে চলে গেছে, তার স্মৃতির সাথে আজও আমি একত্রে চলি।
তিনি বলেন, আশিক চৌধুরীরা সারাটা জীবন অর্থনৈতিকভাবে কোনঠাসা ছিল। যেভাবে শুরু ছিল শেষটাও ঠিক তেমনি রয়ে গেছে। বাপ্পী চৌধুরী আবেক আপ্লুত হয়ে তার সামনে বসা সকল সাংবাদিকদের অনুরোধ জানান আজ থেকে সাংবাদিক আশিক চৌধুরী’র নাম ব্যবহার করতে গেলে তোমরা শিক্ষক সাংবাদিক শব্দটি আগে ব্যবহার করবে। কারণ আমি মনে করি, এখানে যারা উপস্থিত প্রতিটি সাংবাদিক শিক্ষক আশিক চৌধুরী’র দিক্ষায় দীক্ষিত।
জীবনের শেষ বেলায় জীবন সঙ্গী বিহীন একজন নারী, একজন রাজনীতিক, একজন জীবন যুদ্ধা প্রিয়াংকা চৌধুরী তার বক্তব্যে কিছুই বলতে পারেন নি। যতটুকু বলেছেন, হৃদয়ের আর্তনাদ আর শূন্যতার চাদরে মোড়ানো পঙ্গতিগুলো শুনিয়েছেন আশিক চৌধুরী’র রেখে যাওয়া মানুষগুলোর কাছে। তিনি শুধু প্রিয় মানুষটির জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
স্মৃতিচারণ সভায় বক্তরা সকলেই প্রয়াত কবি, সাংবাদিক আশিক চৌধুরী’র আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। প্রতিটি বক্তা তার স্মৃতির কপট খুলে হৃদয়ে আচড়ে থাকা মূহুর্তের কথাগুলো বলেছেন আর চোখের জলে দুচোখ ভিজিয়েছেন। এ এক অপার ভালোবাসা, এ মায়া আজ তার জন্যই। যিনি মানুষকে খুব সহজেই ধারণ করতে পারতেন। পাশে দাড়াতেন কথা চাইতেও বেশি দৃঢ় ভাবে। তার শূন্যতা যেন পুরো অনুষ্ঠানময় এক হৃদয় বিদারক ক্ষনের জন্ম খেকে শপথ নেওয়া কলম চলবেই আশিক চৌধুরীর আদর্শিক কলম।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

যোগাযোগঃ

মীর প্লাজা ( ৩য় তলা ), ৮৮  সি কে, ঘোষ রোড , ময়মনসিংহ ।

মোবাইল: ০১৭১১-৬৮৪১০৪

ই-মেইল: matiomanuss@gmail.com