Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

,
সংবাদ শিরোনাম :
«» ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব-এর ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উৎসব «» আজ ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব-এর ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী : গুণীজন সম্মাননা ‘২০১৯ পাচ্ছেন ১৩ গুণী ব্যক্তিত্ব «» অস্ত্র চাঁদাবাজিসহ একাধিক মামলার আসামি মানিক গ্রেফতার «» ডাকসু’র জিএস ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাঃ সম্পাদক রব্বানী’র জন্মদিনে বাকৃবি শাখার দৃষ্টিনন্দন আয়োজন «» কলমের স্বপ্নভঙ্গ- ৭১’এর মতো আরেকটি যুদ্ধ করতে হবে, তরুণ প্রজন্ম তৈরি থেকো- ফ্যাক্ট রোহিঙ্গা «» অক্সিজেনের ফ্যাক্টরিতে আগুন : আমাজন জঙ্গল «» পরিচ্ছন্ন নগরী চাই, ডেঙ্গু মুক্ত জীবন চাই «» ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা: এমন নৃশংস ঘটনার পুনরাবৃত্তি আর চাই না «» বিভাগীয় কমিশনার খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে কিছু সময় «» রিতুকে ফিরে পাওয়ার আকুতি ; সন্ধান চাই

‘দ্রুত সিটির গ্যাজেট করে দিন’-প্রধানমন্ত্রীকে রওশন এরশাদ এমপি

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥
গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে ময়মনসিংহের আকুয়াসহ দেশের ৯টি স্থানে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় পাশে ছিলেন ময়মনসিংহের মাটি ও মানুষের নেতা ধর্মমন্ত্রী আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান। ময়মনসিংহ প্রান্ত থেকে কনফারেন্সে যুক্ত হন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ। সরকার সারা দেশে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মান করতে যাচ্ছে। এ কনফারেন্সের মাধ্যমে যার সূচনা হল।

প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন বিরোধী দলীয় নেতা। তিনি ময়মনসিংহ বিভাগের পর মহানগর করে দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান। তবে মহানগরের গ্যাজেট দ্রুত দেয়ার জন্য তাগিদ দেন।

দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন শীর্ষক প্রকল্প হাতে নিয়েছে ধর্মমন্ত্রনালয়। এর আওতায় প্রথম পর্যায়ে গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, সিলেট, ঝালকাঠি, খুলনা, বগুড়া, নোয়াখালি এবং রংপুরে এই মসজিদ ও ইসলামিক সেন্টার নির্মাণ এর ভিত্তিপ্রস্থর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই প্রকল্প উদ্বোধনকালে ময়মনসিংহের আকুয়া ছিল জনাকীর্ণ। ছিল বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসলামকে শান্তির ধর্ম উল্লেখ করে বলেছেন, ইসলামের প্রকৃত শিা মানুষের কাছে তুলে ধরতেই তাঁর সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইসলাম শান্তির ধর্ম। এই শান্তি যেন বজায় থাকে সেইদিকে আমরা ল্য রাখছি।’
এইদেশে সকল ধর্মের মানুষ বাস করে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রত্যেক ধর্মের মানুষই এদেশে স্বাধীনভাবে তার নিজ নিজ ধর্ম পালন করতে পারবে। এটাই ছিল জাতির পিতার চেতনা এবং চিন্তা। তাই তিনি বলেছিলেন, ধর্মনিরপেতা মানে ধর্মহীনতা নয়, বরং ধর্ম পালনের স্বাধীনতা। যেটা ইসলামেরও মূল কথা। কারণ, ইসলাম ধর্ম সকল ধর্মকে সম্মান করে। বাংলাদেশ সেভাবেই একটি অসম্প্রতায়িক চেতনায় গড়ে উঠবে, আমরা সেটাই চাই।’

গণভবনে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ধর্মমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ অধ্য মতিউর রহমান। তিনি অনুষ্ঠানের শুরুতেই শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন। এবং ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব আনিসুর রহমান প্রকল্পের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। ভিডিও কনফারেন্সে  সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

ময়মনসিংহ প্রান্তে আকুয়াস্থ মড়লবাড়ি মসজিদ প্রাঙ্গনে ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সংসদে বিরোধী দলের নেতা বেগম রওশন এরশাদ, নান্দাইল আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদিন খান তুহিন, ঈশ্বরগঞ্জ জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম, মুক্তাগাছা আসনের এমপি সালাউদ্দিন মুক্তি, বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন, অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাস উদ্দিন ভূইয়া, জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ আওয়ামী লীগ সভাপতি এড. জহিরুল হক, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ এহতেশামুল আলম, মহানগর আওয়ামী লীগ প্রস্তাবিত কমিটির সহ সভাপতি অধ্যপক গোলাম ফেরদৌস জিল্লু, এড. আল হোসাইন তাজ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল হাসান বাবু, বাংলাদেশ ইমাম সমিতির সভাপতি কাজী শাকের আহমেদ, জেলা মটর মালিক সমিতির সভাপতি মমতাজ উদ্দিন মন্তা, জেলা যুবলীগ আহবায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক শাহরিয়ার মো: রাহাত খান, আকুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ আফাজ উদ্দিন সরকার, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ আহবায়ক মোফাখখর হোসেন খোকন, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পান্না, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী, মহানগর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রাজ্জাক উষাণ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব, বিশিষ্ট আলেম ওলামাগণসহ মুসুল্লিরা উপস্থিত ছিলেন।


শুভেচ্ছা বক্তব্যে ধর্মমন্ত্রী আলহাজ অধ্যক্ষ বলেন, ইসলাম প্রচার ও প্রসারের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৫ সালের ২২ মার্চ ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। এই ধর্মের প্রচার ও প্রসারে জাতির পিতা আরো অনেক কাজ করে দিয়েছিলেন ।

তিনি বলেন, ইসলামের প্রকৃত শিাটা যেন মানুষ পায় এবং ইসলামী সংস্কৃৃতিটা মানুষ যেন ভালভাবে রপ্ত করতে পারে, চর্চা করতে পারে, সেদিকে ল্য রেখেই প্রধামন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এ উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রতিটি জেলায়-উপজেলায় আমরা ৫৬০টি মডেল মসজিদ তৈরি করে দেব। যেখানে সত্যিকারভাবে ইসলাম ধর্মের চর্চা হবে ।

তিনি বলেন, এই মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র থেকে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, দুর্নীতি, মাদক এর বিরুদ্ধে ও প্রভাব বলয় থেকে সমাজকে রক্ষার কথা বলা হবে।

এ সময় ময়মনসিংহ প্রান্ত থেকে ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদে বিরোধী দলের নেতা বেগম রওশন এরশাদ ও বাংলাদেশ ইমাম সমিতির সভাপতি কাজী শাকের আহমেদ।
বেগম রওশন এরশাদ প্রধানমন্ত্রীকে ২ এপ্রিল ময়মনসিংহ পৌরসভাকে সিটি করপোরেশনে উন্নীত করায় ধন্যবাদ জানিয়ে দ্রুত সিটি করপোরেশনের গ্যাজেট প্রকাশ এর জন্য দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

তিনি বলেন, আপনি বিভাগ দিয়েছেন, সিটি অনুমোদন দিয়েছেন। ময়মনসিংহের মানুষ খুব খুশি। এবার প্রতিটি জেলায় একটি করে অর্থনৈতিক জোন করে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিবেন এটি বর্তমান প্রেক্ষাপটের দাবি।
এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিরোধী দলীয় নেতার উদ্দেশ্যে বলেন, এ বিষয়ে সংসদে দাবি জানাবেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial