Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!

,
সংবাদ শিরোনাম :
«» করোনাকালীন মানবিক যোদ্ধাদের প্রতি আনুষ্ঠানিক সম্মান প্রদর্শন করবে ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাব «» বাংলাদেশ হাউস বিল্ডিং ফাইনান্স করপোরেশন, ময়মনসিংহের উদ্যোগে মানবিক সহায়তা «» কেমন আছে আমাদের সাংবাদিকঃ একেএম ফখরুল আলম বাপ্পী চৌধুরী «» ময়মনসিংহ ডিবি’র বিশেষ অভিযানে ১১০ পিস ইয়াবাসহ ৫ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার «» ময়মনসিংহে ডিবি’র বিশেষ অভিযানে ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ীসহ ১৬ জন গ্রেফতার «» ময়মনসিংহের গোয়েন্দা পুলিশ ১৫১ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে «» বিএনপির সন্ত্রাসীরা পাগলা থানা এলাকায় যুবলীগ লীগ নেতার জমির ধান কেটে নিয়ে গেছে «» সাবেক ধর্মমন্ত্রী’র কন্ঠ নকল করে অর্থ আত্মসাৎকারী সেই প্রতারক আবারও গ্রেফতার «» কোভিড-১৯ ও সাইবার সচেতনতাঃ ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি ব্যারিস্টার মোঃ হারুন অর রশিদ «» ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে পরিবহনে চাঁদাবাজির অভিযোগে আরো ৯ জনকে আটক করে ময়মনসিংহ ডিবি

ময়মনসিংহের মাদক বিরোধী অভিযান থমকে যাওয়ার আশংকা

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত:

ওসি ডিবির বদলির খবরে ময়মনসিংহে মাদক বিরোধী অভিযান থমকে যাওয়ার আশংকা। সাফল্যের কৃতিত্বটা কারও একার নয়, গোটা জেলা পুলিশের। কিন্তু ময়মনসিংহে ওসি ডিবি আশিকই আলোচিত-সমালোচিত। আলোচনা তার পারফমেন্সর জন্য যার স্বীকৃতি দিয়েছেন জেলা ও রেঞ্জ পুলিশ। মাসিক শ্রেষ্ঠ ইন্সপেক্টর এর পুরস্কার পেয়েছেন আশিকুর রহমান। আর মাদক বিক্রেতাদের কাছে ত্রাস হিসেবে তিনি পরিগনিত।

মাদক  বিরোধী অভিযানে ময়মনসিংহ জেলায় জনমনে কিংবদন্তি খ্যাতি পান ওসি ডিবি। বিভিন্ন গনমাধ্যমে মাদক বিরোধী অভিযানের সাফল্যে উঠে আসে যেখানে তার সাহসী ভূমিকা ও দায়িত্বশীলতা এক নজির হিসাবে আলোচিত হয়। অন্যদিকে গত দেড় মাসে জেলায় মাদক বিরোধী অভিযানে একের পর এক মাদক জোনগুলো ডিবি পুলিশের অব্যাহত সাড়াশী অভিযানের মুখে পড়ে। চাপের মুখে পড়া শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ও গডফাদারদের কাছে রীতিমত এক আতংকের নাম হয়ে উঠেন এই অফিসার।

জেলার প্রভাবশালী মাদক গডফাদারদের ষড়যন্ত্রের টার্গেটেও পরিনত হয়ে আছেন তিনি। মাদক জোনগুলো থেকে পাওয়া বিভিন্ন সূত্রের তথ্যভাষ এমনটাই। তাকে বদলির জন্য এর আগেও মাদক সিন্ডিকেট ও অপরাধী চক্র সচেষ্ট ছিল।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, ইদানিং বিভিন্ন পর্যায়ে নামে বেনামে পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠছে। এর পেছনে সক্রিয় রয়েছে ঘাপটি মেরে থাকা মাদক গডফাদাররা। যারা এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে এবং আত্মগোপনে রয়েছে।

জানা যায়, ওসি ডিবি আশিকুর রহমান ময়মনসিংহ থেকে বদলি না হওয়া পর্যন্ত বা চলমান মাদক বিরোধী অভিযান শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রভাবশালী শীর্ষ শসস্ত্র মাদক ব্যবসায়ীরা স্বস্তি পাচ্ছেনা। মাদকের পৃষ্টপোষকরাও ভয়ের মধ্যে রয়েছে।

এদিকে মাদক বাণিজ্য ভেঙ্গে পড়লেও কৌশলগতভাবে তা চলছে বলে সূত্র জানায়। এর মধ্যেই খবর ছড়িয়েছে ময়মনসিংহ থেকে বদলি হয়ে যাচ্ছেন ওসি ডিবি আশিকুর রহমান। এনিয়ে চলছে নানা গুঞ্জন। শহরের মাদক জোনগুলোতে এ নিয়ে সংশ্লিষ্টদের মধ্যে কৌতহল বাড়ার বিষয়টি সচেতন মহলের দৃষ্টিতে এসেছে। তাদের একাধিক সূত্রে আশংকা প্রকাশ করছে এ মুহূর্তে ওসি ডিবি পদে রদবদল হলে জেলার মাদক বিরোধী অভিযান এর গতি থমকে যাওয়ার আশংকা রয়েছে।

পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযানে যে সাফল্যে ও প্রভাব বিস্তার করেছে তা সারা দেশের নিরিখে উল্লেখ্যযোগ্য। এক্ষেত্রে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ এর ভূমিকাও ব্যাপক। ওসি ডিবির বদলিতে তা কার্যত: স্লথ হয়ে যেতে পারে। কেননা সাহসী ও আপোষহীন এই চৌকষ তরুণ গোয়েন্দা অফিসার জেলার মাদক জগৎ অচল করে দিয়ে যে কড়া চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করেছেন তা এযাবৎকালে হয়নি। জেলায় মাদক বিরোধী অভিযানে ওসি ডিবি মোঃ আশিকুর রহমান সেরা পারফমেন্স করা কালে তার বদলি হলে তা প্রকারন্তরে মাফিয়াদের অস্তিত্ব ও স্বার্থকেই সংরক্ষন করবে বলে মনে করেন ময়মনসিংহের সচেতন মহল।

তবে এমুহূর্তে জেলার মাদক বিরোধী অভিযানের একজন করিৎকর্মা সফল অফিসার বদলি হচ্ছেন কিনা এব্যাপারে পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করে কিছু বলেননি। তবে সূত্র বলেন রুটিন বদলি হতেই পারে। সেটা উর্ধতন কর্তৃপক্ষের ব্যপার।

ওসি ডিবি আশিকুর রহমানের বদলির খবরে মাদক জোন কৃষ্টপুর, চামড়াগুদাম, চরপাড়া, শম্ভুগঞ্জ, আকুয়া, র‍্যালীর মোড়ে মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে কাউন্টডাউন শুরু হয়েছে। সূত্র জানায় ইতিপূর্বে মাদক বিরোধী অভিযানের শুরুতে স্বেচ্ছায় ধরা দিয়ে বর্তমানে জেল হাজতে থাকা কিছু দুর্ধর্ষ  মাদক ব্যবসায়ী জামিন নেয়ার অপেক্ষায় রয়েছে। চরপাড়া এলাকার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী রিগ্যান,শম্ভুগঞ্জের সাবান আলীদের ঘনিষ্টসূত্র থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

গত দেড়মাসে জেলায় মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযানে পুলিশ ও ডিবি পুলিশের তৎপরতায় ব্যাপক সাফল্যে এর সূত্রপাত হয়েছে।

এ সময়ে অস্ত্র,মাদকদ্রব্য উদ্ধার, মাদক বিক্রেতা ধরপাকড়, মামলা ও বন্দুকযুদ্ধের নিহতের ঘটনা জনমনে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। সেক্ষেত্রে আশিকুর রহমানের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের ভূমিকা জনগনের দৃষ্টিআকর্ষন করেছে। মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে ত্রাসে পরিনত হয়েছেন ওসি ডিবি আশিক। সংগত কারনে তার বদলির খবরে মাদকসেবী ও বিক্রেতাদের ভয় কমে যাচ্ছে।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial