,
সংবাদ শিরোনাম :
«» রোগীদের সুস্থ্য করার হাসপাতাল যখন নিজেই অসুস্থ্য :ধোবাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে «» বিএনপির তর্জন-গর্জন শোনা যায়, বর্ষণ দেখা যায় না: সেতুমন্ত্রী «» বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বাকৃবি’তে গবাদিপশুর চিকিৎসা ও ভ্যাক্সিন প্রদান কর্মসূচি «» সম্মেলন ডেকে হেফাজতের আমির নির্বাচন করা হবে: বাবুনগরী «» নারকেলগাছে উঠে পড়লেন মন্ত্রী, গাছে বসেই সংবাদ সম্মেলন করলেন «» যে কারণে ইউএনও ওয়াহিদা জনপ্রশাসনে ওএসডি, স্বামী মেজবাউল হোসেনকে বদলি «» তিতাসের ৮ কর্মকর্তা-কর্মচারী গ্রেপ্তার: মসজিদে বিস্ফোরণ «» মনে কষ্ট নিয়ে চলে গেলেন আল্লামা শফী, হাটহাজারীতে জানাজার পর দুপুরে দাফন «» আবারো ফিলিস্তিনিদের পাশে থাকার অঙ্গীকার সৌদি আরবের «» আগামী বছরের শুরুতে ঢাকা সফর করবেন এরদোয়ান

বিপদ-সংকট উত্তরণের জন্য জরুরি অবস্থা দরকার বিএনপি’র: ওবায়দুল কাদের

শরাফত আলী শান্ত: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, যারা বিরোধী দল হিসেবে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনে ব্যর্থ,দেড় বছরেও খালেদা জিয়ার জন্য দেড় মিনিট যারা আন্দোলন করতে পারেনি, জরুরিভাবে তাদের বিপদ–সংকট থেকে উদ্ধার করার জন্য জরুরি অবস্থা দরকার। বিএনপি ডেঙ্গু নিয়ে রাজনীতি করছে। তিনি বলেন, দেশের মানুষ কাজ চায়, নাম চায় না।

 

আজ শনিবার সকালে রাজধানীর ফার্মগেটের আনন্দ সিনেমা হলের সামনে সারা দেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধে আওয়ামী লীগের তিন দিনব্যাপী পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান কর্মসূচির সমাপ্তি ও ডিএনসিসির পাঁচ নম্বর অঞ্চলের পরিচ্ছন্নতা অভিযানের উদ্বোধনকালে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

 

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ শেখ হাসিনার নির্দেশ’—এই অঙ্গীকারে ডেঙ্গু ও এডিস মশা প্রতিরোধে সরকার কর্মতৎপরতা শুরু করেছে। সর্বাত্মকভাবে একে লড়াই হিসেবে নিয়েছে। তিনি বলেন, ‘অনেকে কাজে নেই, তারা কখনো বলে মহামারি ঘোষণা করো, কখনো বলে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করো। জরুরি অবস্থা তাদের দরকার, যারা জরুরি সংকটে আছে। দল হিসেবে ব্যর্থতার দগদগে ঘা যাদের, যারা শুধু ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ, আন্দোলনে ব্যর্থ।’

 

গত বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশে ধানমন্ডি খালে তিন দিনব্যাপী পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। সারা দেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধে দল এই কর্মসূচি চালাচ্ছে।

 

আওয়ামী লীগ নেতা ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঢাকাসহ সারা দেশে আওয়ামী লীগের তিন দিনের আনুষ্ঠানিক কর্মসূচি শেষ হলো। তবে যত দিন না এডিস মশার আক্রমণ থেকে দেশের জনগণকে রক্ষা করতে পারব, তত দিন এই পরিচ্ছন্নতামূলক ও সচেতনতামূলক কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।’ গতকাল বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) নেতাদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। সারা দেশে চিকিৎসকদের সমন্বয়ে একটি মনিটরিং সেল গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আজ মনিটরিং সেল গঠন করা হবে। সারা দেশে সর্বত্র যাতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের শনাক্তকরণ, রক্ত পরীক্ষা ও চিকিৎসা হয়, তা এই সেল সার্বক্ষণিকভাবে তদারক করবে।

 

ডেঙ্গুতে ফিলিপাইনে হাজারের মতো লোক মারা গেছে, লক্ষাধিক আক্রান্ত। এই রোগ মহামারি, এটা ভিয়েতনামের রোগ। প্রতিবেশী দেশ ভারত, মিয়ানমার ও চীনেও আছে। এই রোগ থাইল্যান্ডেও ব্যাপক আকারে বিস্তার লাভ করেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, ‘আমরা কথা বলব না, কাজ করব। এই সময়টি অত্যন্ত সংবেদনশীল, এই সময় অতিকথন দেশের জন্য খারাপ ফল বয়ে আনতে পারে।’ তিনি অতিকথন থেকে দায়িত্বশীল সবাইকে বিরত থাকার আহ্বান জানান। একটি মহল আতঙ্ক ছড়াচ্ছে, যাতে ঈদের সময় মানুষ বাড়িঘরে না যায়। যাঁরা বাড়ি যাবেন, তাঁদের সতর্ক থেকে ঈদ উদ্‌যাপন করার আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।

 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিএম মোজাম্মেল হক, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসিম কুমার উকিল, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial